রাজশাহী অঞ্চলে অবশেষে এলো প্রাণ জুড়ানো বৃষ্টিরাবিতে ভাস্কর্য উল্টানোর ঘটনায় লিখিত অভিযোগরাজশাহীর পৃথক ঘটনায় ১২ লাখ ৭৫ হাজার টাকা ছিনতাইবাঘায় বীষমুক্ত বিদেশে রপ্তানীযোগ্য আম উৎপাদন বিষয়ক প্রশিক্ষণলাক্স সুন্দরী থেকে সুপ্রিম কোর্টের ব্যারিস্টারক্যামেরা রেখে আহত শিশুদের বাঁচালেন সাংবাদিকধর্মান্তরিত হয়ে হিন্দু-মুসলিম দুই স্ত্রী নিয়ে বিপাকে স্বামী, অতঃপর জেল হাজতেতিন মাসের শিশুকে আদালতে তলব!মমতার বিরুদ্ধে গরুর মাংস খাওয়ার অভিযোগশিব মন্দিরে বাজবে মাইক, সমঝোতায় হিন্দু-মুসলিমফেসবুকে দুই বাকপ্রতিবন্ধীর প্রেম, লন্ডন থেকে বাংলাদেশেবাঁশের খুঁটিতে বিদ্যুৎ জিআই পাইপে গ্যাসএকটি রসগোল্লার কারণে ভেঙে গেল বিয়ে!রাতে গৃহবধূর ঘরে পুলিশ, তালা লাগিয়ে গণপিটুনিপাবনায় যাত্রীবাহী বাস উল্টে নিহত ৩
০১ মে, ২০১৭
        

'ভালোবাসা দিবসে লাল গোলাপ বিক্রি সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ'

প্রকাশঃ ০৯ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭

আন্তর্জাতিক ডেস্ক – ভালোবাসা দিবসে লাল গোলাপ বিক্রি সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করে দিয়েছে সৌদি সরকার। তবে স্থায়ীভাবে তা নিষিদ্ধ করা হয়নি। শুধুমাত্র আগামী ভেলেন্টাইস ডে উপলক্ষে লাল গোলাপ ফুল বিক্রি নিষেধ করে দেওয়া হয়েছে। মেইল অনলাইন জানায়, ইসলামী সংস্কৃতির সঙ্গে ভালোবাসা দিবস বেমানান অভিযোগে এ নিষিদ্ধতা আরোপ করা হয়। বিশ্বব্যাপী ভালোবাসা দিবসকে নানা ভাবে পালন করা হয়। জাপানে এদিন নারীদের কোন উপহার দেওয়া হয় না। শুধুমাত্র পুরুষরাই তাদের প্রিয় মানুষ ও স্ত্রীদের থেকে উপহার পেয়ে থাকেন। এছাড়া ফিনল্যান্ড ও এস্তোনিয়ায় দিনটিকে শুধু বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের মাঝে কাটানো হয়। তাদের রুমানীদের সঙ্গে কোন সম্পর্ক নেই।

এদিকে, গতবছর পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদে বিশ্ব ভালোবাসা দিবস উদযাপন নিষিদ্ধ করেছিল  প্রশাসন। দেশটির কয়েকটি গণমাধ্যম জানায় , স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় নগর প্রশাসনকে নির্দেশনা দিয়েছে, সেদিন যেন কেউ ব্যক্তিগতভাবে বা যৌথভাবে এ দিবস উদযাপন করতে না পারে! শোনা যাচ্ছে এবছরেও সেখানে ভালোবাসা দিবস উদযাপন নিষিদ্ধের ঘোষণা আসতে পারে ।

তবে শুধু পাকিস্তান নয়, আরো অন্তত ৫টি দেশ আছে যেখানে ভালোবাসা দিবস উদযাপন সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। ৬০ শতাংশ মুসলিম অধ্যুষিত মালয়েশিয়ায় ভালোবাসা দিবস উদযাপনে সরকারি নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। ২০১২ সালে ভালোবাসা দিবসে দেশটির কয়েকটি হোটেলে অভিযান চালিয়ে বেশ কিছু তরুণ-তরুণীকে অবৈধ সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ার অভিযোগে আটক করা হয়। পরে তাদের জেল ও জরিমানাও করা হয়।

মধ্যপ্রাচ্যের কট্টরপন্থি মুসলিম দেশ ইরান ২০১১ সালে ভালোবাসা দিবসকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে। সে সময় সরকারি এক বিবৃতিতে বলা হয়, হৃদয়, অর্ধ-হৃদয়ের প্রতীক, লাল গোলাপ এবং এই দিন সম্পর্কিত কোনো কার্যক্রম সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। এ ধরনের কার্যক্রমের কারণে জরিমানা, কারাদণ্ড ও এর চাইতেও ভয়াবহ সাজা হতে পারে।

রাশিয়ার বেলগ্রাডে ২০১১ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবসের অনুষ্ঠান নিষিদ্ধ করা হয়। আধ্যাত্মিক নিরাপত্তা বজায় রাখতে এই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে বলে কর্তৃপক্ষ জানায়।

কট্টর সুন্নিপন্থি সৌদি আরবেও ভালোবাসা দিবস উদযাপন নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ১৪ ফেব্রুয়ারির আগে থেকেই যে কোনো ধরনের ফুল, লাল রঙয়ের পণ্য, ভালোবাসা দিবসের কার্ড বিক্রি বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে দেশটির সরকার। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যেও ভালোবাসা দিবস উদযাপনে সরকারি নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।