রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে নেপালি শিক্ষার্থী আটকসিলেটের আতিয়া মহলে আছে নব্য জেএমবির অন্যতম নেতা রাজশাহীর জঙ্গি মুসা!রাজশাহীতে যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হচ্ছে স্বাধীনতা দিবসকাঙালিভোজে আ. লীগের সংঘর্ষ, ছাত্রলীগকর্মী নিহতরাজশাহীর চারঘাটে ঝুলন্ত লাশ উদ্ধারবিভিন্ন স্থানে আত্মঘাতি হামলা ।। রাজশাহীতে নিরাপত্তা জোরদার ৮৫টা বিয়ে করেছি, একঘেয়ে লাগে না : মনামী ঘোষরাজশাহী কলেজে মসজিদের ইমামের সঙ্গে ছাত্রলীগের হাতাহাতিভয়ঙ্কর গণহত্যা, ২৫ মার্চের অপারেশন সার্চ লাইট ।। রাজশাহীর ইতিহাসে আজও নিখোঁজ ১১১৩ জেলায় কালবৈশাখী ঝড়ের হুঁশিয়ারিরাজশাহীর মোহনপুরে কয়েকশ মানুষের সেচ্ছাশ্রম, আড়াই কিলোমিটার রাস্তা সংস্কাররাজশাহীতে সন্তানদের নিষ্ঠুরতা ।। এক মুঠো ভাতের জন্য রোগী সেজে হাসপাতালে বৃদ্ধ!নাটোরে চার দোকান ভস্মীভূত৩ দিনের ছুটি, ঘরমুখো মানুষ ।। ঢাকা-রাজশাহী-চাঁপাই মহাসড়কে চলছে গাড়ি থেমে থেমেরাজশাহীর ৫০ মুক্তিযোদ্ধা পেলেন আর্থিক সহায়তা
২৮ মার্চ, ২০১৭
        

চারঘাটে প্রতিবন্ধী নির্যাতন মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার

প্রকাশঃ ০২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭

রাজশাহীঃ প্রতিবন্ধী এক যুবককে নির্যাতনের মামলায় রাজশাহীর চারঘাট উপজেলার শলুয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান জিয়াউল হক মাসুমকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার দুপুর ১টার দিকে ইউপি কার্যালয় থেকেই তাকে গ্রেফতার করা হয়। চেয়ারম্যান মাসুম ইউনিয়ন যুবদলের সভাপতি।

এ মামলায় উপজেলা চেয়ারম্যান আবু সাঈদ চাঁদসহ আরও ৯ জন আসামি আছেন। আবু সাঈদ চাঁদ বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও চারঘাট উপজেলা বিএনপির সভাপতি। গত মঙ্গলবার দুপুরে রাজশাহীর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-৫ এ তাদের বিরুদ্ধে মামলাটি করা হয়। মামলার বাদী চারঘাটের মাড়িয়া জোয়ার্দ্দারপাড়া গ্রামের মৃত ইমান আলীর প্রতিবন্ধী ছেলে সাখাওয়াত হোসেন ওরফে সিনা।

চারঘাট থানার ওসি নিবারণ চন্দ্র বর্মণ জানান, আদালতে মামলাটি করার পর আসামিদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়েছে। এ কারণে ইউপি চেয়ারম্যান মাসুমকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মামলার অন্য আসামিদেরও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

মামলার এজাহারে প্রতিবন্ধী সিনা বলেছেন, গত ২৪ জানুয়ারি সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে শলুয়া ইউপির সদস্য জাইদুর রহমান ফোন করে তাকে স্থানীয় প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে ডাকেন। সেখানে আগে থেকেই উপস্থিত ছিলেন মামলার সব আসামি।

সেখানে পৌঁছার পর চেয়ারম্যান আবু সাঈদ চাঁদের নির্দেশে তাকে নির্যাতন করা হয়। এ ছাড়া তার একটি কৃত্রিম পা ভেঙে ফেলা হয়। জমি নিয়ে বিরোধের নিষ্পত্তি করে দেয়ার নামে তাকে ডাকা হয় বলেও মামলার এজাহারে উল্লেখ করেছেন প্রতিবন্ধী সিনা।