রাজশাহী অঞ্চলে অবশেষে এলো প্রাণ জুড়ানো বৃষ্টিরাবিতে ভাস্কর্য উল্টানোর ঘটনায় লিখিত অভিযোগরাজশাহীর পৃথক ঘটনায় ১২ লাখ ৭৫ হাজার টাকা ছিনতাইবাঘায় বীষমুক্ত বিদেশে রপ্তানীযোগ্য আম উৎপাদন বিষয়ক প্রশিক্ষণলাক্স সুন্দরী থেকে সুপ্রিম কোর্টের ব্যারিস্টারক্যামেরা রেখে আহত শিশুদের বাঁচালেন সাংবাদিকধর্মান্তরিত হয়ে হিন্দু-মুসলিম দুই স্ত্রী নিয়ে বিপাকে স্বামী, অতঃপর জেল হাজতেতিন মাসের শিশুকে আদালতে তলব!মমতার বিরুদ্ধে গরুর মাংস খাওয়ার অভিযোগশিব মন্দিরে বাজবে মাইক, সমঝোতায় হিন্দু-মুসলিমফেসবুকে দুই বাকপ্রতিবন্ধীর প্রেম, লন্ডন থেকে বাংলাদেশেবাঁশের খুঁটিতে বিদ্যুৎ জিআই পাইপে গ্যাসএকটি রসগোল্লার কারণে ভেঙে গেল বিয়ে!রাতে গৃহবধূর ঘরে পুলিশ, তালা লাগিয়ে গণপিটুনিপাবনায় যাত্রীবাহী বাস উল্টে নিহত ৩
০১ মে, ২০১৭
        

জেঁকে বসছে শীত, সর্বনিম্ন তামপাত্রা রেকর্ড

প্রকাশঃ ১৪ জানুয়ারী, ২০১৭

ষড় ঋতুর বাংলাদেশে পৌষ ও মাঘ মাস নিয়ে শীতকাল। ইংরেজি মাসের হিসেব অনুযায়ী ডিসেম্বরের মাঝামাঝি থেকে শুরু করে ফেব্রুয়ারির মাঝমামাঝি পর্যন্ত বাংলাদেশে শীত অনুভূত হয়। তবে এদেশে শীতের আগমনটা হয় সাধারণত আরো আগে। কিন্তু এবার যেন কিছুতেই শীতের দেখা মিলছিলো না। ডিসেম্বর শেষ হয়ে জানুয়ারিতেও রাজধানীতে তেমন শীত নেই। কিন্তু গত কয়েকদিন ধরে রাজধানীতেও বেশ শীত অনুভূত হচ্ছে।

বলা যেতে পারে পৌষের শীত নগরবাসীকে তেমন কাঁপন ধরাতে পারেনি। আজ শুক্রবার পৌষ মাসের শেষদিন। আগামীকাল শনিবার থেকে শুরু হচ্ছে মাঘ মাস। গ্রাম বাংলায় কথিত আছে মাঘের শীতে নাকি বাঘও পালিয়ে যায়। তবে মাঘ মাস শুরুর একদিন আগেই দেশের উত্তরাঞ্চলের রংপুর বিভাগে ব্যাপক শীত পড়েছে। আজ শুক্রবার নীলফামারীর রাজারহাটে রেকর্ড করা হয়েছে এ মৌসুমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। আজ সকালে রাজারহাটের তাপমাত্রা ছিল মাত্র ৫ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। পঞ্চগড় জেলাতেও একই রকম শীতের প্রকোপ রয়েছে।

শুধু নীলফামারী বা পঞ্চগড় নয়; রংপুর বিভাগের অধিকাংশ জেলাতেই ব্যাপক শীতের প্রকোপ দেখা দিয়েছে। জেলাগুলোতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের ভেতরে রয়েছে। রাজশাহী বিভাগেও একই শীতের দাপট। আবহাওয়া অধিদপ্তরের কর্মকর্তা এম রুহুল কুদ্দুস জানান, রংপুর বিভাগের নীলফামারী ও কুড়িগ্রাম জেলার ওপর দিয়ে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ বয়ে গেছে। যে কারণে সেখানে ব্যাপক শীত পড়েছে। শীতের দাপট আরও কয়েকদিন থাকতে পারে।

আজ শুক্রবার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, নীলফামারী-কুড়িগ্রাম অঞ্চলের ওপর দিয়ে যে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ চলমান রয়েছে সেটি আরো বিস্তার লাভ করতে পারে। এছাড়াও রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের বাকি অংশ, মাদারীপুর, টাঙ্গাইল, সীতাকুণ্ড, রাঙামাটি, শ্রীমঙ্গল ও কুষ্টিয়া অঞ্চলে যে শৈতপ্রবাহ চলছে সেটি আরো বিস্তৃত হবে। দেশব্যাপী রাতের তাপমাত্রা একটু কমতে পারে। আর দিনের তাপমাত্রার তেমন কোন পরিবর্তন আসবে না।

মাঘ মাস আসার একদিন আগেই ঢাকাসহ দেশের মধ্য ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলেও শীত অনুভূত হচ্ছে। শুক্রবার রাজধানীতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১২ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা গতকালে চাইতে প্রায় তিন ডিগ্রী সেলসিয়াস বেশি। এছাড়াও খুলনায় তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১১ দশমিক ২, চট্টগ্রামে ১৪, ময়মনসিংহে ১১ দশমিক ৬, রাজশাহীতে ৯ দশমিক ২, রংপুরে ৬ দশমিক ৮, সিলেটে ১৩ ও বরিশালে ১০ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বোঝাই যাচ্ছে মাঘ মাসে এবার ব্যাপক শীত অনুভূত হবে।