রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে নেপালি শিক্ষার্থী আটকসিলেটের আতিয়া মহলে আছে নব্য জেএমবির অন্যতম নেতা রাজশাহীর জঙ্গি মুসা!রাজশাহীতে যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হচ্ছে স্বাধীনতা দিবসকাঙালিভোজে আ. লীগের সংঘর্ষ, ছাত্রলীগকর্মী নিহতরাজশাহীর চারঘাটে ঝুলন্ত লাশ উদ্ধারবিভিন্ন স্থানে আত্মঘাতি হামলা ।। রাজশাহীতে নিরাপত্তা জোরদার ৮৫টা বিয়ে করেছি, একঘেয়ে লাগে না : মনামী ঘোষরাজশাহী কলেজে মসজিদের ইমামের সঙ্গে ছাত্রলীগের হাতাহাতিভয়ঙ্কর গণহত্যা, ২৫ মার্চের অপারেশন সার্চ লাইট ।। রাজশাহীর ইতিহাসে আজও নিখোঁজ ১১১৩ জেলায় কালবৈশাখী ঝড়ের হুঁশিয়ারিরাজশাহীর মোহনপুরে কয়েকশ মানুষের সেচ্ছাশ্রম, আড়াই কিলোমিটার রাস্তা সংস্কাররাজশাহীতে সন্তানদের নিষ্ঠুরতা ।। এক মুঠো ভাতের জন্য রোগী সেজে হাসপাতালে বৃদ্ধ!নাটোরে চার দোকান ভস্মীভূত৩ দিনের ছুটি, ঘরমুখো মানুষ ।। ঢাকা-রাজশাহী-চাঁপাই মহাসড়কে চলছে গাড়ি থেমে থেমেরাজশাহীর ৫০ মুক্তিযোদ্ধা পেলেন আর্থিক সহায়তা
২৮ মার্চ, ২০১৭
        

রামেক হাসপাতালের টয়লেটগুলো ময়লাতে ভর্তি, দূর্গন্ধে রোগীদের সীমাহীন দূর্ভোগ

প্রকাশঃ ৩০ ডিসেম্বর, ২০১৬
ফাইল ফটো.....

রাজশাহীঃ রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের শতাধিক টয়লেট ব্যবহার করতে পারছেন না রোগীরা। নিয়মিত পরিস্কার না করায় সৃষ্টি হয়েছে এ পরিস্থিতি। এছাড়া বেশকিছু টয়লেটের দরজায় রয়েছে সমস্যা। ফলে চরমে পৌঁছেছে ভোগান্তি।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, শিগগিরই নষ্ট দরজা-জানালা মেরামত করে ব্যবহার উপযোগী করা হবে এসব টয়লেট। এনিয়ে মোটা অংকের অর্থের বরাদ্দও মিলেছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, হাসপাতালে মোট ছয় শতাধিক টয়লেট রয়েছে। এর মধ্যে বিভিন্ন ওয়ার্ডের শতাধিক টয়লেটে নেই দরজার ছিটকিনি। এছাড়া কোনো কোনোটিতে আটকে রয়েছে ময়লা। পরিস্কার না করায় হয়ে পড়েছে ব্যবহার অনুপোযোগী। এসব টয়লেটে কমোড না থাকায় দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে রোগীদের। 

রোগী ও তাদের স্বজনদের অভিযোগ, নিয়মিত পরিস্কার করা হয় না টয়লেটগুলো। আবার যেগুলো পরিস্কার করা হয় সেগুলোও নামমাত্র। ফলে অধিকাংশ টয়লেটই হয়ে পড়েছে ব্যবহার অনুপযোগী। টয়লেটগুলো থেকে দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়ছে ওয়ার্ডগুলোতে। অনেক রোগী ওই ময়লা টয়লেট ব্যবহার করায় দুর্গন্ধ আরও বাড়ছে। 

তবে বিষয়টি মানতে নারাজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এএফএম রফিকুল ইসলাম। তিনি উল্টো অভিযোগ করেন, রোগী ও তাদের স্বজনদের অধিকাংশই টয়লেন ব্যবহারে অভ্যস্ত নয়। এছাড়া অতিরিক্ত রোগীর চাপেই নোংরা হচ্ছে টয়লেট।

তিনি দাবি করেন, প্রতি ওয়ার্ডে দুজন করে সুইপার নিয়মিত টয়লেটগুলো পরিস্কার করেন। তবে পরিচ্ছন্নতা সংকট থাকায় কিছুটা বিলম্ব হয় এ কাজে।

তিনি আরো বলেন, বেশ কিছু টয়লেটের দরজা-জানলা ভাঙাচোরা। এগুলো মেরামোতের উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। হাসপাতালের অন্যান্য মেরামত কাজের সঙ্গে এটিও করা হবে। এনিয়ে সম্প্রতি দুই কোটি টাকার উপরে বরাদ্দ মিলেছে। শিগগিরই এ কাজ শুরু করা হবে।