রাজশাহী অঞ্চলে অবশেষে এলো প্রাণ জুড়ানো বৃষ্টিরাবিতে ভাস্কর্য উল্টানোর ঘটনায় লিখিত অভিযোগরাজশাহীর পৃথক ঘটনায় ১২ লাখ ৭৫ হাজার টাকা ছিনতাইবাঘায় বীষমুক্ত বিদেশে রপ্তানীযোগ্য আম উৎপাদন বিষয়ক প্রশিক্ষণলাক্স সুন্দরী থেকে সুপ্রিম কোর্টের ব্যারিস্টারক্যামেরা রেখে আহত শিশুদের বাঁচালেন সাংবাদিকধর্মান্তরিত হয়ে হিন্দু-মুসলিম দুই স্ত্রী নিয়ে বিপাকে স্বামী, অতঃপর জেল হাজতেতিন মাসের শিশুকে আদালতে তলব!মমতার বিরুদ্ধে গরুর মাংস খাওয়ার অভিযোগশিব মন্দিরে বাজবে মাইক, সমঝোতায় হিন্দু-মুসলিমফেসবুকে দুই বাকপ্রতিবন্ধীর প্রেম, লন্ডন থেকে বাংলাদেশেবাঁশের খুঁটিতে বিদ্যুৎ জিআই পাইপে গ্যাসএকটি রসগোল্লার কারণে ভেঙে গেল বিয়ে!রাতে গৃহবধূর ঘরে পুলিশ, তালা লাগিয়ে গণপিটুনিপাবনায় যাত্রীবাহী বাস উল্টে নিহত ৩
০১ মে, ২০১৭
        

বুলবুল ইন, মিনু আউট ।। রাজশাহী মহানগর ও জেলা বিএনপির কমিটি ঘোষণা

প্রকাশঃ ২৭ ডিসেম্বর, ২০১৬

রাজশাহীঃ দীর্ঘ সাত বছর পর রাজশাহী জেলা ও মহানগর বিএনপির নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। মঙ্গলবার কেন্দ্রীয়ভাবে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ মহানগরের জন্য ২১ এবং জেলায় ৩১ সদস্যবিশিষ্ট আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়।

মহানগর কমিটিতে সাবেক সভাপতি ও বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনুকে বাদ দিয়ে সভাপতি করা হয়েছে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের বরখাস্ত মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলকে। আর সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে শফিকুল হক মিলনকে।

এদিকে জেলার সাবেক সভাপতি মোস্তফাকে বাদ দিয়ে সভাপতি করা হয়েছে তোফাজ্জল হোসেন তপুকে। আর সাধারণ সম্পাদকে কামরুল মনিরকে বাদ দিয়ে সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে মতিউর রহমান মন্টুকে।

দলীয় সূত্র মতে, মিজানুর রহমান মিনুকে সভাপতি ও অ্যাডভোকেট শফিকুল হক মিলনকে সাধারণ সম্পাদক করে ২০০৯ সালে রাজশাহী মহানগর বিএনপির কমিটি গঠিত হয়। একই সময় অ্যাডভোকেট মোস্তফাকে সভাপতি ও অ্যাডভোকেট কামরুল মনিরকে সাধারণ সম্পাদক করে জেলা বিএনপির কমিটি গঠিত হয়।

নবগঠিত জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান মন্টু বলেন, সবার সম্মতিতে এ কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। নাদিম মোস্তফা দীর্ঘদিন কমিটিতে ছিলেন। এছাড়া তিনি কেন্দ্রিয় কমিটির সদস্যও। তাই তাকে রাখেনি কেন্দ্রীয় কমিটি। আর কামরুল মনির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা হওয়ায় তাকেও কমিটিতে রাখা হয়নি।